Skip to content

একটু উষ্ণতার জন্য ।

মে 26, 2012


 

কটু উষ্ণতার জন্য
কত শত দিনের অপেক্ষা
অবশেষে সেই মাহেন্দ্রখন,
এতোটুকু স্পর্শে
তুমি এতোটা জ্বলে উঠবে
তা সত্যিই আমার বোধগম্য ছিল না।


সে যেন এক উত্তাল তরঙ্গ,
এদিক থেকে ওদিকে ভেসে বেড়ানো
তরঙ্গের সেই অভিনব রুপ
আমায় যেন অন্ধ করে দিয়েছে।
উত্তাল তরঙ্গ যখন আরো বেশী উত্তাল
তখন আমার অস্তিত্ব খুঁজে পাইনি,
এই মাতাল কে আরো বেশী মাতাল
করেছিল তোমার স্পর্শ।

তুমি যে অবর্ননীয় ছিলে
তাতে কোন সন্দেহ ছিলনা,
তারপরেও তোমাকে এতোটা
কাছ থেকে না দেখলে
তোমাকে আবিষ্কার করা
এতোটা সহজ হতো না।

তুমি সুন্দর, তুমি ভয়ংকর
তুমি ধনুকের তীর।
তুমি অগ্নি, তুমি অগ্নি মশাল
চাইলেই আমায় জ্বালিয়ে দিতে পারে।

তোমাকে নিয়েই ভাবছি।

জানুয়ারি 7, 2012

তোমাকে নিয়েই ভাবছি
তোমাকে নিয়ে যে ভাবতে হবে
তা কিন্তু, প্রথম দেখায় ভাবিনি
আর এখন…
আমার ভাবনার আকাশটি দখলে তোমার


আজ আবার অনেক দিন পরে
তোমায় নিয়ে লিখতে বসলাম
হাজারটা প্রশ্ন ছুড়ে দিওনা আবার
কি লিখছো, কি ভাবছো?
তুমি তো বেশ ভাল করেই জান
এর উত্তর আমি তোমায় দিতে পারবো না
ভাবতে ভাল লাগে তোমায় নিয়ে
লিখতে ভাল লাগে তোমায় ভেবে।

তোমার এটা বেশ ভাল করেই জানা
আমার মনের কথাগুলি আমি কখনোই
তোমাকে গুছিয়ে বলতে পারিনি
আর তুমি ই বলো
ভাবনার কথা গুলি যদি নাই বলি
তবে এতে এমন কিইবা ক্ষতি?

না বলা এই কথাগুলি
এ হৃদয়ে বেশ ভাল আছে
আমি তা বলছি না,
তবে এখনি সুন্দর একথাগুলিকে
আমি বিবস্ত্র করতে চাইনা।

আর ক’টাদিন সময় দাও
আমি ঠিকই এইদিন
না বলা এ কথাগুলি
তোমার হাতে রেখে হাত
কোন এক পূর্নিমা রাতে
তোমার পাশে বসে
গান বা কবিতার সুরে
নয়তো বা খোকাদের মতো
এক দমেই সব শুনিয়ে দিবো।

জীবন ক্যালেন্ডারে স্মরণীয় দুটি দিন।

অক্টোবর 22, 2011

তালিতে এসেছি প্রায় ছ’বছরের কাছাকাছি, পড়াশুনা, খেলাধুলা, আড্ডাবাজি আর আব্বুর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে একটু টাইম দিয়েই কেটে যাচ্ছিল আমার দিনগুলি। ফ্যমিলির সবাই এখানে থাকাতে প্রবাসে থাকার কষ্ট অনেকটাই বুঝতে পারিনি। গত কয়েক মাস যাবত মাথায় যেন কি একটা ভুত উঠলে যে “” পড়াশুনার পাশাপাশি পাটর্টাইম একটি কাজ করবো”। তো শুরু হলে কাজ খুঁজা, বতর্মানে ইতালির যে কাজের অবস্থা তাতে কাজের পুর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়া একজনের পক্ষে কাজ পাওয়াটাই একটু কঠিন ই বটে। আর তাদের সারিতে আমিও, কারণ আমার আব্বুর সাইবার ক্যাফ দেখাশুনা করা ছাড়া আমি আর তেমন কোন কাজই করিনি। তারপর শুরু হলো কাজ খুঁজার পালা, অনেক খুজার পর অবশেষে পেলাম FLEXTRONICS GLOBAL SERVICES এ। ১লা সেপ্টম্বর ২০১১ থেকে শুরু হলো কাজের জগতে আমার আগমন। কাজে জয়েন করার পর থেকেই জীবনের অন্য রকম একটি স্বাদ নিতে শুরু করছি। সেই স্বাদ কখনো তিক্ত আবার কখনো ভাল লাগারও বটে। কাজ করতে করতে কিভাবে যে একটি মাস চলে গেল তা টেরই পেলাম না। গত সপ্তাহে বুস্তা পাগা (কাজ ও বেতনের বিবরণী) তুলে দেখতে পেলাম আমার জীবনের প্রথম কাজের বেতনের টাকা আমার ব্যাংকে চলে গেছে। ১৫ অক্টোবর সকালে ব্যাংক থেকে টাকা তুললাম। টাকা তোলার আগে থেকেই ভাবছিলাম কি করবো টাকা তুলে, অবশেষে সিদ্ধান্ত নিলাম, বাসায় ফিরে আব্বু আম্মুকে এক সাথে ডেকে টাকা গুলি আব্বু আম্মুর হাতে দিবো। অবশেষে তাই করলাম। আজ ২২ ই অক্টোবর, আজ আমি ব্লগ লিখছি, তবে আমার সেই ক্ষণের অনুভুতির কথা লিখে বা কাউকে বলে প্রকাশ করার মতো নয়।

রোযা কী ও কেন?

জুলাই 30, 2011


র্ষপরিক্রমায় রহমত মাগফিরাত ও নাজাতের বার্তা নিয়ে আমাদের দরজায় কাড়া নাড়ছে মাহে রমজান বা সিয়াম সাধনার মাস।
সিয়াম কি? সিয়াম একটি আরবী শব্দ তার শাব্দিক অর্থ কোন জিনিস থেকে বিরত থাকা বা থেমে থাকা। ইসলামি শরিয়তে সুবহে সাদিক থেকে শুরু করে সূর্যাস্ত পর্যন্ত আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে কিছু পানাহার, পাপাচার ও কামাচার থেকে বিরত থাকার নামই সিয়াম বা রোজা।
আল্লাহতালা মানবজাতির দুনিয়ার জীবনযাত্রার শুরু থেকে নিয়ে শেষ পর্যন্ত যতগুরি শরীয়ত বা জীবনবিধান নাযিল করেছেন এই সিয়াম সাধনা তার প্রত্যেকটিরই অবিচ্ছেদ্ধ অংশ ছিল এখনও আছে। এই সিয়াম সাধনাকে সকল যুগের মানুষের জন্য ফরজ ছিল।
এ প্রসঙ্গে আল্লাহ কোনআনে বলেন: হে ঈমানদারগণ তোমাদের উপর রোযা ফরয করা হয়েছে যেমনি ফরয করা হয়েছিল তোমাদের তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর।যেন তোমরা তাকওয়া অর্জন করতে পারো। (সুরা বাকারা আয়াত ১৮৩)
রোযার গুরুত্বারোপ করতে গিয়ে রাসুর সা: বলেন :ইসলামের ভিত্তি হচ্ছে পাঁচটি বিষয়ের উপর আর বিষয় গুলি হচ্ছে কালেমা, নামাজ , রোযা , হজ্জ ও যাকাত।
রাসুল সা: আরো বলেন : রোযা মানুষের জন্য ঢাল স্বরূপ। যুদ্ধের ময়দানে ঢাল যেমন প্রতিপক্ষের আঘাত কে প্রতিহত করে। রোযাও ঠিক তেমনি আমাদের বাস্তব জীবনে শয়তানের কুমন্ত্রনা থেকে ফিরিয়ে রাখে।

রোযার বিধানের উদ্দেশ্য কী?
কোরআন ও হাদিসের ভাষ্যমতে আমরা জেনেছি সিয়াম সাধনা আমাদের জীবন ব্যবস্থায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ও মৌলিক বিধান।এখন আমরা জানবো এই গুরুত্বপূর্ণ বিধানের উদ্দেশ্য কী। রোযার বিধান ফরজ করার উদ্দেশ্য বলতে গিয়ে আল্লাহ সুরা বাকারার ১৮৩ নং আয়াতের শেষে বলেন লা’আল্লাকুম তাত্তাকুন যার অর্থ আল্লাহভীতি বা তাকওয়া অর্জন করতে পারা।
যৌক্তিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা যদি একটু চিন্তা করি তবেই বুঝতে পারবো সিয়াম সাধনা কালে আমাদের মাঝে কোন প্রকার কুপ্রবৃত্তী বাসা বাধতে পারে না। এ মাসে আমরা সকল প্রকার পাপাচার, মিথ্যচারিতা, বেহায়াপনা, সুদ, ঘুষ, ও যৌন আকর্ষন ইত্যাদি থেকে বিরত থাকে একমাত্র আল্লাহভীতির কারনেই।
বিস্তারিত পড়ুন…

গুগল ট্রান্সলেট এ যুক্ত হলো বাংলা ভাষা।

জুন 21, 2011

গুগল ট্রান্সলেট :

গুগল কে ধন্যবাদ না দিয়ে পারছি না। এখন গুগল থাকে বিশ্বের ৬৩ টি ভাষা থেকে বাংলা ভাষা যে কোন কিছু অনুবাদ করা যাবে এক ক্লিকেই। অনুবাদ করা যাবে বাংলা থেকেও অন্যান্য ভাষায়। গুগল এই সার্ভিস টি মান সম্পুর্ণ না হলেও কোন বাক্যের ভাব অর্থ বুঝার ক্ষেত্রে অনেক সাহায্য করবে বলে আশা করি।
আমি আমার নিজের কথাই বলি, ইতালিতে আসার পর কতো জায়গাতে ইতালিয়ান টু বাংলা অথবা বাংলা টু ইতালিয়ার ডিক্সনারী খুঁজেছি, কোথাও খুঁজে পাইনি। অবশেষে খুঁজে পেয়েছিলাম এই ডিক্সনারীটি। । আরেকটি বিষয় হচ্ছে ইতালিয়ান কোন বন্ধুকে যদি বলতাম যে গুগলে আমার ভাষার অনুবাদ নেই। ওরা বিষয়টিকে বুঝতেই চাইতো না। ওরা বলতো গুগলে সব ভাষার অনুবাদ আছে তোমাদের টা নেই কেন? তবে এখন থেকে বলা যাবে যে গুগলে আমাদের ভাষারও অনুবাদ আছে। ইতালির ভার্সিটিতে পড়তে আসা বাংলাদেশী ছাত্র ছাত্রীদের জন্য গুগলের এই ট্রান্সলেট সার্ভিস টি বেশ উপকারে আসবে বলে মনে করি। আর এখানে বড় হওয়া বাংলাদেশী ছেলে মেয়ের জন্য গুগল অনুবাদ থেকে বাংলা শিখতে হলে তাদের অভিভাবক দের সাহায্য নিয়ে শিখাটাই ভাল হবে।
ইউকে, ইউএসএ, ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন ও আরবের বিভিন্ন দেশে জন্মগ্রহনকরী বাংলাদেশি তরুন ছাত্র ছাত্রীদের গুগল ট্রান্সলেট অনেক হেল্প করবে বলে আসা রাখি।

আজব দুনিয়া।

মে 16, 2011


এ এক আজব দুনিয়া
বড্ড আজব মনে হয় মাঝে মাঝে।
এখনে মেঘের ঘনঘটা ছাড়াই বৃষ্টির দেখা মেলে
এখানে গ্রীষ্ম বর্ষা শরৎ হেমন্তের কোন ভেদাভেদ নেই
এখানে কখনো শীতের হিম সকাল আবার
কখনো বসন্তের কোকিল ডাকা ভোর।


এখানে,
এদিকে ওদিকে ছড়িয়ে আছে অসংখ্য পথ
এ পথে হাঁটতে হাঁটতে ক্লান্ত হয়ে গেলেও
গন্তব্যে পৌঁছানো যাবে না।
তারপরেও , সকাল সন্ধা এ পথেই হাঁটছে মানুষ,
বড্ড আজব এ দুনিয়া আজব এ দুনিয়ার মানুষ।


এখানের আকাশে তারা জ্বলে না
এখানে জোসনা বলে কিছু নেই
এখানে অমাবশ্যা আর পূর্নিমা যেন সমার্থক শব্দ।
এখানে চব্বিশ ঘণ্টাই দিন আবার চব্বিশ ঘণ্টাই রাত
আজব এই দুনিয়া বেহুঁশ এই দুনিয়ার মানুষ।

অবশেষে খুঁজে পেলাম ইটালিয়ান টু বাংলা- বাংলা টু ইটালিয়ান অভিধান।

জানুয়ারি 12, 2011

ইতালিতে আসার পর থেকেই খুঁজছিলাম ইতালিয়ান টু বাংলা একটি অভিধান। বড় বড় লাইব্রেরীতে খুঁজেছি অনেক পাইনি। নেটেও খুঁজতে গিয়ে Dizionario plus এর BENGALI অভিধানটি। কিছুটা হলেও শান্তি পাই এই দেখে যে ইতালিয়ান টু বাংলা অভিধান যখন আছে তাহলে খুঁজে পাবো-ই। ইটালিয়ান ভাষা শিখার জন্য এখানে কিছু বই পাওয়া যায় তবে তা ততটা মান সম্পন্ন নয়।

কাল বিকালে গিয়েছিলাম পিয়াচ্ছা ডুওমোতে। ওখানে মোনদাদরি নামে বিশাল এক লাইব্রেরী দেখে, বই দেখার লোভ আর সামলাতে পারলাম না। প্রথমেই ঘুরে দেখলাম ইনফরমেশন এন্ড টেকনোলজি বিয়ষক বইয়েই সাইট থেকে। তার পাশেই দেখি বিভিন্ন ভাষার অভিধানের সমাহার। অসংখ্য ভাষার অভিধানের ভিড় থেকে খুঁজে বের করলাম ইতালিয়ান টু বাংলা ও বাংলা টু ইতালিয়ান অভিধানটি। ১৩.৫০ ইউরো দিয়ে নিজ ব্যাগে নিয়ে নিলাম অভিধানটি।

অনেকে হয়তো বলবেন এটা নিয়ে ব্লগ লেখার কি আছে?
আমি মনে করি হ্যাঁ দরকার আছে। ইতালিতে বাংলাদেশীদের সংখ্যা দিন বাড়ছে। এখানে বাংলাদেশী নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা পড়াশুনা করছে,। মিলান, তরিন ও পাদভা ইউনির্ভাসিটিতে অনেক বাংলাদেশি ভাই বোনেরা পড়াশুনা করতে এসেছে তাদের জন্য এ অভিধান খুবই সহায়ক হবে বলে আশা করি।

মিলানে বসবাস করি কেউ যদি এই অভিধানটি ক্রয় করতে আগ্রহী হন তবে পিয়াচ্ছা ডোয়মোর পাশে মোনদাদরি নামে একটি লাইব্রেরী আছে ওখান থেকে কিনতে পারেন।

Dizionario bengali plus
AUTORI Bonazzi Eros
PREZZO € 13.50
PAGINE 592
IN LIBRERIA DA Ottobre 2009
ISBN 9788878871687

অভিধানটি অনলাইনেও কিনতে পারবেন এখান থেকে